পরস্ত্রী (দাই নেইবারস ওয়াইফ) – গে ট্যালেসি (পর্ব-০৬)
সাহিত্যে, গল্প, উপন্যাসের যৌনতা, নগ্নতা, যৌন মিলন এবং নারী দেহ, প্রেম

December 29, 2020 | By Admin | Filed in: বিখ্যাত লেখকদের সাহিত্যে যৌনতা.

Parostri-Thy-Neighbors-Wife-Gay-Talese-218x300
……..অন্য লােকের সঙ্গে যৌনকর্ম করে জনকে তার কম ভালােবাসার কথা, কিন্তু বারবারা নিশ্চিত ছিল যে, সে তাকে অধিক ভালােবাসে। যখন সে সকালে ঘুম থেকে ওঠে, ডেভিড তখনও ঘুমাচ্ছে। সে নাস্তা খাবার জন্য রেস্তোরায় প্রবেশ করতেই জন এগিয়ে এসে তাকে অভ্যর্থনা জানায়, হাসে অনুমােদনের হাসি এবং চুম্বন করে।…………

…………এক সন্ধ্যায় বুল্লারাে উপস্থিত হয় উইলিয়ামসনের উডল্যান্ড হিলের বাড়িতে। প্রবেশ পথেই অভ্যর্থনা জানায় স্বচ্ছ নেগলিজি (স্বচ্ছ ঢিলেঢালা পােশাক) পরা কালাে চোখের এক স্বর্ণকেশী, যার মুখের হাসি প্রশান্তি ছড়াচ্ছে চারদিকে। যুবতীর নাম ওরালিয়া লীল। প্রবেশ পথের আলােতে স্বচ্ছ পােশাকের ভেতর দিয়ে তার উর্ধ্বমুখী স্তন ও স্তনের কালাে বোটা বুল্লারাে পরিষ্কার দেখতে পায় এবং প্রশস্ত কক্ষের ভেতর দিয়ে তাকে অনুসরণ করার সময় দুচোখ দিয়ে উপভােগ করে তার বড়সড় সুশােভন নিতম্বের মার্জিত ঢেউ এবং প্রকৃত ঘটনা হল, তার স্বচ্ছ ঢিলেঢালা পােশাকের নিচে সে ছিল একেবারে নগ্ন।

শুধুমাত্র ওরালিয়ার পােশাক দেখে মনে হয় বেডরুমে উলঙ্গ হয়ে ফুর্তি করার চমৎকার একটা প্রস্তুতি নিয়েছে সে অথবা সে এমন একটা দৃশ্যে অভিনয় করার ইঙ্গিত দিচ্ছে, যা হবে খুবই উত্তেজক এবং অন্যেরা তা চেয়ে চেয়ে দেখবে এবং উপভােগ করবে কল্পনায় তার নগ্ন শরীর।

বারবারা খুশি হয় এবং তার হাত ধরে লিভিংরুমের দিকে যেতে থাকে। হঠাৎ বুল্লারাে থমকে দাঁড়ায়; তার নিশ্বাস প্রায় বন্ধ হয়ে আসে। সে দেখতে পায় লিভিংরুমে কয়েকজন নারী ও পুরুষ নগ্ন অবস্থায় চেয়ারে, সােফায় এবং কার্পেটে বসে আছে। ওয়াইনের গ্লাসে চুমুক দিচ্ছে এবং কথা বলছে নিজেদের মধ্যে। বুল্লারাে তাদের নগ্ন চামড়া দেখে বিস্মিত হয়। | জন উইলিয়ামসনের সঙ্গে সেই স্মরণীয় লাঞ্চের সময়ই এই নগ্নতার সম্ভাব্যতা সম্পর্কে বুল্লারাে জেনেছিল। বারবারার সঙ্গে লিভিংরুমে প্রবেশ করার পর সে অনুভব করল তার নাড়ির স্পন্দন দ্রুত হচ্ছে, হাতের তালু ঘামছে এবং লিঙ্গ খাড়া হয়ে ওঠার জন্য অস্থির হতে শুরু করেছে। সে বারবারার দিকে ফিরল একটা ব্যাখ্যার জন্য কিছু সামান্য কথা অথবা কোনাে ভঙ্গি কিংবা অভিব্যক্তি যা তার মানসিক চাপ কমাতে পারে এবং থামাতে পারে তার লিঙ্গের উত্থান। কিন্তু বারবারা তাকে একটা সােফার দিকে টেনে নিয়ে যায়, সেখানে লাল চুলওয়ালা এক নধরকান্তি যুবতী বসে ছিল নগ্ন হয়ে। তার অসংখ্য কালাে কালাে তিলসমৃদ্ধ স্তনদুটি ঢেকে রেখেছে কেবল একগুচ্ছ মুক্তা। | ‘এই হল জন বুল্লারাে। সেদিন তােমার সঙ্গে পরিচয় হয়েছিল। মনে নেই? বারবারা যুবতীকে জিজ্ঞাসা করে । যুবতী মাথা নাড়ে, হাসে এবং বুল্লারাের দিকে দুই হাত প্রসারিত করে যখন সে এগিয়ে যায় তখন বিশাল স্তনও ঊর্ধ্বমুখী হয়। বুল্লারাে তাকে আলিঙ্গন করে। তার খুব ইচ্ছে হয় যুবতীর বড় বড় স্তন চুষতে। বারবারা তাকে রুমের অন্যান্য লােকের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়। সে প্রত্যেককেই চোরাচোখে দেখতে থাকে। চারদিকে দুলতে থাকা স্তন, পুরুষের লােমে ঢাকা বুক, নারী ও পুরুষের নগ্ন নিতম্ব, সাদা ঊরু, বিভিন্ন রঙের যৌনকেশ, বিভিন্ন আকারের লিঙ্গ-ছােট, বড় ও মাঝারি, কোনাে কোনােটা খত্না করানাে, কোনােটা খৎনা করা হয়নি এবং উল্লেখযােগ্যভাবে প্রতিটি লিঙ্গই উত্থানহীন।

রুমের কোনার দিকে বুল্লারাে আরলিন গফের পরিচিত শরীর শনাক্ত করে। সে পােশাক-পরা এক দম্পতির সঙ্গে কথা বলছিল। বুল্লারাে তাদের কাছে গিয়ে বসে পড়ে। সেখানে আরও ছিল ডেভিড স্কুইন্ড। এই প্রকৌশলীর সঙ্গে তার প্রথমদিনই পরিচয় হয়েছিল। রুমের মাঝখানে একদল নারী-পুরুষের সঙ্গে গভীর আলােচনায় ব্যস্ত ছিল সে। প্রত্যেকেই তার কথা মনােযােগ দিয়ে শুনছিল। জন উইলিয়ামসনকেও বুল্লারাে দেখতে পায় সেই দলের সঙ্গে যার লিঙ্গ খুবই ছােট, চওড়া বুক এবং যার পায়ের কাছে বসে ওরালিয়া তার পা ম্যাসেজ করে চলেছে, যার চামড়ার রঙ বাদামি, একজন নেংটা নেফারতিতি (মিশরীয় পুরাণের ঈশ্বরী), যার যথাযথ খাজ, ভজ ও উঁচুনিচু সম্বলিত শরীর এই ঘরের যে কোনাে নারীর ঈর্ষার বস্তু।

উইলিয়ামসন তার সঙ্গে যােগ দেবার জন্য বুল্লারােকে আহ্বান জানায়। সে বারবারা ও ডেভিডকে একত্রে রেখে দ্রুত তাকে অনুসরণ করে এবং ওরালিয়ার পাশে গিয়ে বসে কার্পেটের ওপর। ওরালিয়া তার দিকে তাকিয়ে হাসে এবং জনের পা ম্যাসেজ করতে থাকে। বুল্লারাে রুমের অন্যান্য লােকদের দিকে মনােযােগ দেয় এবং মাঝে মাঝে এমনভাবে মাথা নাড়ে যেন সে মনােযােগ দিয়ে তাদের কথা শুনছে যা তারা আলােচনা করছে। বুল্লারাের চোখ মাঝে মাঝেই পর্যবেক্ষণ করছে ওরালিয়ার পুরাে শরীর। তার কৃষ্ণকায় চামড়ায় কোনাে দাগ ছিল না, তার স্তন ঝােলা নয়, তার পেট মসণ, তার কালাে যৌনকেশ ছিল চমৎকার করে ছাটা যেখানে চোখ পড়লে চোখ আটকে থাকে। বুল্লারাে অনুভব করে তার লিঙ্গ আবার খাড়া হয়ে উঠতে চাচ্ছে। ধাক্কা দিচ্ছে সর্টস-এর জীপারে। সে একটু নড়েচড়ে আরাম করে বসার চেষ্টা করে এবং আস্তে আস্তে ওয়াইনের গ্লাসে চুমুক দেয়।

পেছন দিকে হাসির শব্দ শুনে বুল্লারাে বড় ঘরটার দিকে তাকায়। দেখে বারবারা ও আরলিন খুব উৎফুল্ল হয়ে এক নতুন দম্পতিকে অভ্যর্থনা জানাচ্ছে। আরলিন একটা ন্যাপকিন দিয়ে তার যােনি ও যৌনকেশ ঢেকে রেখেছে। লদলদে নিতম্ব এমনভাবে নাড়াচ্ছিল যেন কোনাে স্ট্রিপার দর্শকদের দিকে উঁচু করে তুলে ধরা নিতম্বে ঢেউ তুলছে। বারবারা আজ চমৎকার পােশাক পরেছে। কারণ আজ অভ্যর্থনার দায়িত্ব তার। সে বুল্লারােকে আহ্বান জানায়। এই সুযােগে জন উইলিয়ামসনের ক্ষুদ্র সেমিনার ও ওরালিয়ার নধর শরীরের সুগন্ধ পরিত্যাগ করে বারবারা ও অন্যান্যদের সঙ্গে যােগ দেয়।

বাড়ি ফিরে বুল্লারাে দেখে জুডিথ ঘুমিয়ে পড়েছে। সুতরাং দেরি হওয়ার কোনাে ব্যাখ্যা দিতে হল না। কিন্তু ঘুমিয়ে না পড়লে সে জুডিথের সঙ্গে যৌনমিলন উপভােগের চেষ্টা করত; কারণ তার যৌনাকাঙ্ক্ষা এখন খুবই তীব্র হয়ে উঠেছে। সে অবশ্য এখন অন্ধকারে শুয়ে অথবা বসে ওরালিয়ার ন্যাংটো শরীরকে উপভােগ করতে পারে। কিন্তু বুল্লারাে হস্তমৈথুন করে খুব একটা মজা পায় না।………..

নতুন ভিডিও গল্প!

………..সে দ্রুত গাড়ি চালিয়ে উইলিয়ামসনের বাড়িতে উপস্থিত হয়। বারবারা প্রবেশ পথেই তাকে অভ্যর্থনা জানায় একটা দীর্ঘ চুম্বন ও উষ্ণ আলিঙ্গনের মাধ্যমে এবং কোনােরকম দ্বিধা না করেই সে বারবারার পরামর্শ মেনে নেয়, তারা লাঞ্চের আগেই যৌনমিলন উপভােগ করবে।

বারবারা তাকে এমন একটি ঘরে নিয়ে যায় যেখানে দেয়াল ও সিলিং-এ আয়না ফিট করা রয়েছে। ফলে নগ্ন অবস্থায় অনেকগুলাে বুল্লারােকে সে দেখতে পায়। দেখতে পায় অনেকগুলাে নেংটো বারবারা হামাগুড়ি দিয়ে তার শরীরের ওপর উঠে আসছে। তার মুখে বিজয়ীর হাসি। সে তার ঝুলন্ত স্তনগুলাে ঘষছে বুল্লারাের বুকে। বারবারা তার লিঙ্গ মুখে পুরে চুষতে থাকে। আর উত্তেজিত বুল্লারাে আয়নার ভেতরে দেখতে পায় বিভিন্ন দিক থেকে বিভিন্ন ভঙ্গিতে বারবারা তার লিঙ্গ চুষছে। এটা খুবই বিরল দৃশ্য যা বুল্লারাে এখন দেখছে-বারবারার যৌনতৃপ্তিদানকারী শরীরের খাঁজভঁজ, উঁচুনিচু, ঢিবি ও গহ্বর সবকিছুই দৃশ্যমান এবং তার সােনালি চুল ভরা মাথাটা বুল্লারাের তলপেটের ওপর ঝুঁকে আছে। মনে হচ্ছে বারবারার অনেকগুলাে হাত ও মুখ আদর করছে বুল্লারাের লিঙ্গকে। বুল্লারাের লিঙ্গও একটা নয়, অনেকগুলাে এবং সবগুলােই সে দেখছে এবং সবগুলােই আনন্দ পাচ্ছে, কাছে এবং দূরে-এ যেন এক যৌন উৎসব। বুল্লারাে তার শরীরের ভেতরে এক ধরনের আনন্দ অনুভব করল, কাঁপতে থাকল থরথর করে এবং অনুভব করল স্থলনের প্রচুর আনন্দদায়ক শিহরণ । তারপর চোখ খুলে সে দেখতে পেল চারপাশে অসংখ্য বুল্লারাে স্থির হয়ে আছে। সে বারবারার সঙ্গে এক ঘণ্টারও বেশি সময় বিছানায় কাটায়। তার সংক্ষিপ্ত যৌনমিলনের ইতিহাসে এটা একটা দীর্ঘসময় কাটানাে। এদিন খাবারের চেয়েও বেশি ক্ষুধার্ত ছিল তারা যৌনমিলনের জন্য। তারা একে অন্যকে উত্তেজিত করার মাধ্যমে নিজেকে নিঃশেষ করে অন্যের আকাক্ষা মিটিয়েছিল।

কারণ জুডিথ তাকে ভয় পেত। এখন স্বামীর সঙ্গে যে সমস্যা তৈরি হয়েছে সে তা অতিক্রম করতে চায়। উইলিয়ামসন বলেছে সে এবং তার দলের অন্যান্য সদস্যরা তাকে সাহায্য করতে পারে যদি সে খােলাখুলিভাবে তাদের সঙ্গে কথা বলে এবং সে একটা পরামর্শও দেয় তার বাড়িতে এসে অনায়াসে পর্যবেক্ষণ করতে পারে যে তার স্বামী অন্য এক নারীর সাথে যৌনমিলন উপভােগ করতে তাকে নিয়ে বেডরুমে প্রবেশ করছে এবং সম্ভবত এভাবে সে উপলব্ধি করতে পারবে যে, অন্য নারীর সঙ্গে খােলাখুলি শারীরিক আনন্দ উপভােগ করাটা তেমন হুমকির কিছু নয়।……….

……….সে এই দলটাকে নিজের আত্মমুক্তির অনুঘটক হিসেবে দেখে। সে নিজেকে ভারমুক্ত করতে চায় কিছু ব্যক্তিগত গােপনীয়তাকে প্রকাশ করে, যা তার অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা ও অপরাধবােধের কারণ। সে তার যাবতীয় গােপনীয়তা প্রকাশ করতে চায় কারণ বিবাহিত জীবনে সেও বিশ্বস্ত ছিল না। উইলিয়ামসনের বাড়ি থেকে ফেরার পথে সেই প্রথমদিনই সে প্রলুব্ধ হয় স্বামীকে তার অবিশ্বস্ততার কথা জানাতে। কিন্তু সে উৎসাহ হারিয়ে ফেলে, কারণ তার যৌনসম্পর্ক স্বাভাবিক ছিল না এবং তার যৌনসঙ্গী ছিল একজন কালাে যুবক।

এসময় জুডিথের বিয়ের প্রায় এক বছর পেরিয়ে গেছে। যৌনমিলন পরিণত হয়েছে সপ্তাহ শেষের উদ্দীপনাহীন একটা বিরক্তিকর রুটিনে। অবশ্য এজন্য সে নিজেকেই দায়ী করেছে, কিন্তু কোনাে বিকল্প পথ দেখতে পায়নি। প্রকৃতঅর্থে বিয়ের পর সে বুল্লারাের সঙ্গে যৌনমিলন উপভােগ করে না, এমনকি সেই প্রথম জীবনে যখন সে তার কলেজ জীবনের প্রেমিকদের সঙ্গে শুয়েছে তখনও নয়। অবৈধ যৌনমিলন জুডিথকে ভয়ানক উত্তেজিত করে তােলে। তখন সে খুবই কামুকী নারীর মতাে আচরণ করে। যখন ১৯৫৮ সালে যৌনমিলন তার কাছে বিয়ের মাধ্যমে বৈধ হয় তখন মনে হয় রান্নাবান্না ও গৃহকর্মের অন্যান্য কাজের মতােই যৌনমিলনও একটি গৃহকর্ম।

মিডডা এবং জুডিথ হাসপাতাল থেকে কাছাকাছি অন্য এক পরিচারকের অ্যাপার্টমেন্টে যেত, বিশেষ করে দিনের বেলায় যখন বুল্লারাে অফিসের কাজে ব্যস্ত থাকত এবং কয়েক ঘণ্টা ধরে তারা পরিতৃপ্ত করত লাগামহীন যৌনাকাঙ্ক্ষা এবং তা জুডিথকে শিহরিত করত। এটা ছিল একটা চূড়ান্ত আনন্দের খেলা। আবেগজনিত অঙ্গীকার না থাকায় এই সম্পর্কের ভেতরে কোনাে জটিলতা ছিল না, কারণ সে জানত মিডােকে সে কখনও বিয়ে করবে না।

একগামী যৌনসম্পর্কের বছরগুলােতে জুডিথের যৌন আকাঙ্ক্ষা নিয়ন্ত্রণে ছিল, কিন্তু যখনই মাঝে মাঝে তার অবৈধ যৌনমিলনের ইচ্ছা জেগে উঠত সে তখন মিডাের কাছে চলে যেত এবং যৌনমিলন উপভােগ করত। মাঝে মাঝে সে আতঙ্ক অনুভব করত বিয়ে এবং পারিবারিক জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে। আরও আতঙ্ক অনুভব করত যদি তার স্বামী জেনে ফেলে। কিন্তু এর মধ্যে পট পরিবর্তন হয় এবং সে অনুভব করতে শুরু করে তার স্বামী অন্য নারীর সঙ্গে যৌনমিলন উপভােগ করছে।……….

……….উইলিয়ামসনের বাড়িতে এসে বুল্লারাে ও জুডিথ লিভিংরুমেই একটা দলের সঙ্গে যােগ দেয়। ওদের প্রত্যেকেই তার আগের চেনা শুধুমাত্র একজন ছাড়া । এই আকর্ষণীয় সুশােভন সুন্দরী যুবতীর নাম গেইল। তার চুলগুলাে লাল, মুখখানা ডিমের আকৃতির। সে নিজেই বুল্লারাের সঙ্গে পরিচিত হয়, কিন্তু সরাসরি জুডিথের দিকে তাকায় না । জুডিথ মনে মনে ভাবে সে হয়তাে তার স্বামীকেই আজ সন্ধ্যার যৌনসঙ্গী হিসেবে বেছে। নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। জুডিথ দ্রুত অনুভব করল তার আত্মবিশ্বাস ক্রমশ হ্রাস পাচ্ছে। একই সঙ্গে সে আরও লক্ষ করে গেইল-এর হাসির সঙ্গে সঙ্গে তার স্বামী প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে এবং কার্পেটের ওপর তার পাশে বসার জায়গা করে দেয় এবং বুল্লারাে নিজের প্রতি গেইল-এর মনােযােগ আকর্ষণ করে। | জুডিথ সােফাতে ডেভিড স্কুইন্ড ও আরলিন গফের পাশে বসল । ওয়াইনের গ্লাসে অল্প অল্প চুমুক দিচ্ছিল এবং অমনােযােগের সঙ্গে শুনছিল তার চারপাশের আলােচনা তার নিজের দুশ্চিন্তার কারণে। জন উইলিয়ামসন তার পায়ের কাছে কার্পেটের ওপর বসল। সে তার সম্পর্কে এমনভাবে কথা শুরু করল যেন সে জানে সে কী চিন্তা করছিল। তারপর সে তার গােড়ালিতে ম্যাসেজ করতে থাকে। জুডিথ বাধা দেয়া তাে দূরের কথা, সে তার পা জন উইলিয়ামসনের দিকে এগিয়ে দেয়। যদিও তখন সে তার সঙ্গে যৌনমিলন কামনা করছিল না, কিন্তু তার মনে হল জনের কিছু অস্বাভাবিক গুণ আছে যা তাকে নারীর কাছে বিশিষ্ট ও রহস্যময় করে তােলে এবং একই সঙ্গে সে জন উইলিয়ামসনের প্রভাবেও মুগ্ধ হয়, যে প্রভাবে এই ঘরের প্রতিটি মানুষ প্রভাবিত। জুডিথ বুঝতে পারে যেভাবে সে কথা বলে তা তার ব্যক্তিগত উন্নয়ন ও কল্যাণের জন্য খুবই জরুরি। যখন তাকে জিজ্ঞাসা করা হয়, সে তার অতিরিক্ত আধিপত্য প্রবণতা পরীক্ষা করার জন্য নিজেকে যথেষ্ট শক্তিশালী মনে করে কিনা, তখন সে একমুহূর্তের জন্য দ্বিধান্বিত হয় এবং তারপর দৃঢ়কণ্ঠে জবাব দেয়, ‘হ্যা, সে যথেষ্ট শক্তিশালী।


Tags: , , , ,

Comments are closed here.

https://firstchoicemedico.in/wp-includes/situs-judi-bola/

https://www.ucstarawards.com/wp-includes/judi-bola/

https://hometree.pk/wp-includes/judi-bola/

https://jonnar.com/judi-bola/

Judi Bola

Judi Bola

Situs Judi Bola

Situs Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Situs Judi Bola

Situs Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Sbobet

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Sbobet

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola

Sbobet

Judi Bola

Judi Bola

Judi Bola