টিচার [ম্যাডাম] যখন বউ (পর্ব-০১)

January 1, 2021 | By Admin | Filed in: প্রেমকাব্য.

গল্প= টিচার (ম্যাডাম) যখন বউ
লেখক= নাহাজুল ইসলাম লাইফ

পর্ব-০১

রাদিয়া;- কি হলো নবাব যাদা ঘুম থেক ওঠ। ৪;৩০ বাজে( ইনি গল্পের নায়কের এর আম্মু)

নাহাজুল:-………

রাদিয়া:- কি হলো ওঠেন..

নাহাজুল:- আর একটু ঘুমাই ততখনে নাস্তা বানাও(গল্পের নায়ক)

রাদিয়া:- একটা ভ্যান গাড়ি কিনে দিতে হবে (বির বির করে)

নাহাজুল :- আম্মু কিছু বললা কি???( একটু চোখ মেলে)

রাদিয়া:- না আমি তো কিছু বলিনি।

নাহাজুল:- ও তাহলে ঠিক আছে..

রাদিয়া :- বাবা আর ২ ছেলে জিবন টা তেজপাতা বানায়া দিল ( মনে মনে)

এমন সময় কল আসলো একলাসের

নাহাজুল :-কি খরব মামা?

একলাস:- মুই তোর মামা হও?( ইনি নাহাজুল এর বেস্ট ফেরেন্ড,আরোও আছে মশিউর, রিপন, বেলাল,নেগলা, নিহা আওর আছে অনেকেই)

নাহাজুল:- সরি বড় ভাই (একটু হেসে)

একলাস:- আজ কলেজ আসবি না??

নাহাজুল :- ঠিক নাই ভাই,তুই আসবি???

একলাস:- হুম ভালো হয়ে গেছি, কলেজ যাব।

নাহাজুল:- ওকে চার মাথায়, দাড়ায়া পাখি দেখ। আমরা যাচ্ছি? (আমরা মানে মশিউর এবং রিপন আমাদের একখানেই বাসা)

রাদিয়া:- পাখি দেখবে মানে কি?( আম্মু)

নাহাজুল:-আকাশ থেকে মাটিতে পড়লাম…. কিছুনা তো একটু লজ্জা পেয়ে (নাহাজুল তুই এতো গাধা)

রাদিয়া :- মনে করেছ কিছু বুঝিনা

নাহাজুল :- বুঝলে ভাল?( একটু হাসি দিয়ে)

রাদিয়া:- ভালো মানে তোর বাবা কেন বলব

নাহাজুল:- কোন লাভ নাই, আব্বুও দেখতে এ আমার মতো বয়সে(মনে মনে)

রাদিয়া :-চুপ করে আছো কেন?

নাহাজুল :- বল গিয়ে, আর দেরি হয়েছে তারাতারি নাস্তা দেও
খেয় কলেজ যাব

রাদিয়া:- কিছু বলব না এখন পরিক্ষা খারাপ হলে তখন দেখাব।

নাহাজুল :- ওকে ওকে।

কি হয়েছে সকাল বেলা এত চিল্লা চিল্লি কেন (এনি নাহাজুল ইসলাম লাইফের বাবা)

নাহাজুল:- কি আর করবে আর তো কোন কাজ নেই আম্মুর রোজ যা করে আজকেও তাই করছে।

রাদিয়া :-আমরা খালি চিল্লা চিল্লি করি উনি অনেক ভালো তাইনা নাহাজুল

নাহাজুল:- হুম ?

ওদিকে আব্বু রাগে জ্বলে যাচ্ছে।

আব্বু:- তারাতারি খেত দেও

রাদিয়া :- জ্বি জনাব

একটু পরে আমিও নিচে গেলাম

নাস্তা করে কলেজের উদ্দেশ্যে রওনা হবো..

এমন সময় রান্না ঘর থেকে কি যেন পোড়ার গন্ধ আসলো…

আম্মু তারাতারি রান্ধন ঘরে গেল..গিয়ে দেখল তরকারিরর ১২ টা বাজছে,তারপর সেই আগের ডায়লগ গুলা,আপনারা হয়ত জানেন না, তাহলে শুনুন

পড়া শুনা তো নাই খালি বান্দারামো, কি ভালো ভাবে পড়া-শুনা করেহ শাংসার হাতে নিয়ে একটা বিয়ে করে নিবে তা না*
একা কত কাজ করি,আমার বুঝি কষ্ট হয়না( এসব কথা আম্মাজান এক বারে বলল)

নাহাজুল:- হি হি হি??(মুখ চেপে ধরছি তাও বের হচ্ছে)

রাদিয়া বেগম:- কি হলো, খেক খেক করে আসতাছিছ কেন?

নাহাজুল:- আম্মু কি বললা তুমি, আমি খেক খেক করে হাসি

রফিক সাহেব :- তুমি এটা ঠিক বললে না।

রাদিয়া বেগম:- তাহলে ঠিক কোনটা?? তুমিই বলো

রফিক সাহেব :- আমার ছেলের হাসি দেখলে যে কোন মেয়ে পটে যাবে?

নাহাজুল :- একটা মুচকি হাসি দিলাম☺

রাদিয়া বেগম:- প্রেমে পড়বে না ছাই, গুনডা কে নিয়ে এত কথা বলা ঠিক না(রেগে গিয়ে)

নাহাজুল :- কি বললা আম্মু আমি গু….নডা

রাদিয়া বেগম:- তা নয়তো কি। আপনি সাদু বাবা হলে তো একটা বিচার ও আসতো না বাসায়

নাহাজুল ইসলাম:- চুপ করে থাকলাম, কারণ সত্যি টাই বলছে সামনে অন্যায় দেখলে হাত গুটিয়ে বসে থাকতে পারিনা

এমন সময় বাইরে থেকে বলো উঠল চল চল.. দেরী হয়ে গেল

পিছন ফিরে দেখি আমার জানের জিগার দোস্তরা মশিউর আর রিপন

নাহাজুল :- ওকে চল তারাতারি

রাদিয়া বেগম:- আর যেন কোন বিচার না আসে বাড়িতে, আর একটা কথা ভালো করে মনে রাখ কলেজে আর একবার মারামারি করলে বের করে দিবে তোমাদের

মশিউর:- আনটি এমন কলিজা কারো নেই, যে আমাদের বের করে দিবে..

রাদিয়া বেগম:- সব বাদর একখানে জোরা হইছে

রিপন:- আনটি তার মানে আপনি বলতে চাচ্ছেন আমরা বাদর..

রাদিয়া বেগম:- বলতে চাচ্ছি মানে কি ১০০ বার বলেছি এখনো বলছি তোমরা বাদর আর হা তোমাদের বান্ধবিরা কি যেন নাম নেহা আর নেগলা ওরা মিনমিনে শয়তানি

নাহাজুল :- হি হি হি?

রাদিয়া বেগম:- দাঁত মাজেনি আজ আর খি খি করে হাসতাছে

সঙ্গে সঙ্গে আমার হাসি বন্ধ, আম্মু হাসতাছে এখন সাথে আব্বুও..

রফিক সাহেব :- তোমরা মা-ছেলে পারও

নাজিম:- আব্বু টাকা দেও, স্কুলে বাদাম খাব..( নাজিম ইসলাম নাহাজুল ইসলামের নিজের ছোট ভাই)

নাহাজুল:- এই বয়সে তোকে বাদাম খেতে হবে।

নাজিম :- আমি তো ছোট আছি তুইযে বড় হয়েও খাস

নাহাজুল:- কি খাই

নাজিম:- সি……গা

নাহাজুল:- ইসারা দিয়ে বুঝায়া দিলাম(মানে বলিস না ভাই?)

নাজিম:- তাহলে আর রাতে কম্পিউটারে গেম খেলাতে দিবি

নাহাজুল:- ওকে ভাই দেব..চুপ থাক।

নাজিম :- ওকে

রফিক সাহেব :- নাজিম কি বলতে ধরছিলে বল??

নাজিম :- আমার সামনে খেয়েছে সেদিন, ওটাই বলতে ধরছিলাম..

রফিক সাহেব :- কি খেয়েছে বল, নাহলে টাকা দেওয়া বন্ধ করে দিব তোমার।

(আমি ভয়ের ভিতর আছি আল্লাহ আমার ছোট ভাইটা যেন না বলে যে সিগারেট খেতে দেখছে) মনে মনে

নাজিম:- বাবা আমি ভাইয়া কে একটা পার্কে দেখেছি, একটা মেয়ের সাথে বাদাম খাচ্ছে

রফিক সাহেব+রাদিয়া বেগম দুজনেই আবাক

আব্বু একটু রেগে বলল মেয়েটা কে ছিল

নাহাজুল:- কোথায় মেয়ে? কোন মেয়ে?

রাদিয়া বেগম: নাজিম তাহলে মিথ্যা বলল?? নাজিম তুমি সত্যি বলছ তো?

নাহাজুল ইসলাম:- আম্মু ওই মিথ্যা বলছে??

নাজিম:- ভাইয়া তাহলে সত্যিটা বলে দেই।

আমি ফাটা বাশের চিপায় পরছি?

রফিক সাহেব:- মেয়েটা কে ছিল?

নাহাজুল:- চুপ করে আছি মুখে কথা নাই

রাদিয়া বেগম :- কি হলো বোবা হলি নাকি

নাহাজুল:- আমতা আমতা… করে বললাম..

চলবে…..

নতুন ভিডিও গল্প!


Tags: , , , ,